মোটা হওয়ার ঔষধের নাম এবং এর সঠিক ব্যবহার

medicine for obesity

মোটা হওয়ার ঔষধের নাম বলতে গেলে বলতে হয় মানবদেহে থাকা মাসেল নিয়ন্ত্রনকারি হরমোন Steroid এর কথা। এ হরমোন এখন মেন মেড পদ্বতিতে পাওয়া যায়। Arnold Schwarzenegger এর মতো বিশ্ব খ্যাত বডি বিল্ডার এটি ব্যাবহার করতেন নিজর বডি ঠিক রাখার জন্য।

মাসেলকে মোটা করার জন্য যে হরমোনটি মানবদেহে কাজ করে তার নাম হলো Steroid ( এটি মানব দেহে অন্যা কাজও করে থাকে )। তবে এর কাজ অনুসারে মানুষ মোটা বা চিকন হয়ে থাকে। এ হরমোনটি কিছু বিষেশজ্ঞদের গবেষণার ফলে মেন মেড পদ্বতিতে এটি এখন কিনতে পাওয়া যায়।

এটি সবরাচর সকল বডি বিল্ডারাই ব্যবহার করে থাকে। আর এটা বডির তেমন কোনো ক্ষতি করে না। তবে এর অধিক মাত্রার ব্যবহার একজন মানুয়ের জন্য খুবি ক্ষতিকর প্রমাণিত হতে পারে।

পরিমিত মাত্রার ব্যবাহরে কোনো প্রকার ক্ষতির সম্ভাবনা নেই। কিন্তু এখন কিছু অসাধু ব্যবসায়িরা নিজেদের লাভের পরিমান বাড়ানের উদ্দেশ্যে এ ঔষধটি নকল করে বাজারজাত করছে। যার কারণে ভয়ানক সব শারিরিক বিপদের সম্মক্ষিন হচ্ছে তরুন বডি বিল্ডাররা।

শরির মোটা করার জন্য আরও অনেক ঔষধ আছে তবে দ্রুত আর প্রভাবিত পরিবর্তন আনতে এ ইনজেক্সনটি ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

এটি সাধারণত ব্যবহারকারিদের বুকের পেশি বেশী বৃদ্বি করে থাকে। যার কারনে যারা এটি অধিক মাত্রায় গ্রহণ করে থাকে তাদের শরিরে মাসেলের অস্বাভাবিক বৃদ্বি হয়ে থাকে।

এটি আপনি খুব সহজেই কিনতে পেয়ে যাবেন। তবে এটি কেনার সময় খুব বুঝে শুনে এবং যাচাই বাছাই করেই কিনবেন। কারণ ইতোমধ্যে অসাধু ব্যবসাইদের প্রকব বেশ বেড়ে গেছে।

মোটা হওয়ার চিকিৎসাভিত্তিক ঔষদের নাম

মোটা হওয়ার ঔষধের নাম

চিকন মানুষগুলো তাদের বডির সাইজের জন্য ভালো যুগ্গতার থাকা সত্তেউ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বনচিত হয়ে থাকে। আর তাই তাদের মনে মোটা হওয়ার একটি অকাক্ষা জন্মে যায়। আর তাই তারা খুজতে থাকে মোটা হওয়ার ঔষধ।

অবশ্য মোটা মানুষেরও সমস্যার কোনো সেস নেই। তবে স্বাস্থ সমস্যার উর্দ্বে হলো মর্যাহিনতার সমস্যা।

এখানে এমন কিছু ঔষদের নাম তুলে দরবো যে গুলো প্রায় অনেকেই ব্যবহার করে নিজেদের স্বাস্থ ঠিক করেছে।

পড়ুন: ঘুমের ঔষধের নাম এবং ব্যবহার প্রণালি

তবে বলাটা বহুল্য যে মোটা হওয়ার ঔষধ গুলোর কোনোটিই আপনার পাশ্ব প্রতিক্রিয়া ঘটানো ছারা কাজ করবে না। আপনি যুদি মোটা হওয়ার ঔষধ ব্যবহার করে উপকৃততে হয়ে থাকেন ৩০ ভাগ তবে বাকি ৭০ ভাগই আপনি ক্ষতিগ্রস্থ হবেন।

মোটা হওয়ার জন্য বাজারে আপনি ফার্মেসিতে হাজার হাজার ঔষধ পেয়ে যাবেন। তবে কিছু মেডিসিন যেগুলো প্রতিনিয়ত বেশী ব্যবহার হয়ে থাকে আমি আপনাদের সামনে সে ঔষধ গুলো তুলে ধরব।

মোটা হওয়ার জন্য সিরাপ

আপনারা হয়তো হামদর্দ এ নামটি শুনেছেন কারণ সিরাপ জগতে এটি একটি বিশেষ নাম। ছোটবেলা কোনো অসুখ হলেই বাবারা যে ঔষধ গুলি নিজেদের সন্তানদের জন্য নিয়ে আসে সেটির মধ্যে হামদর্দ তো থাকেই।

মোটা হওয়ার জন্যও হামদর্দ এর একটি সিরাপ আছে যার নাম সিনকারা। সিনকারা আপনাকে সরাসরি মোটা করে না বরং এটি আপনার ক্ষুদা মন্দা দূর করে আর আপনার ক্ষুদা বাড়িয়ে দেয় আর আপনার মুখের স্বাদ বারিয়ে দেয়।

যার কারনে আপনি ঘন ঘন খাবার গ্রহণ করেন আর এতে আপনার দেহের লক্ষনিয় পরিবর্তন সাধিত হয়। এ সিরাপটি হলো মূলত তাদের জন্য যারা খাবার খেতে কোনো স্বাদ পান না। বা যাদের খাবারের প্রতি কোনো মনোযোগ নেই।

আর যেহেতু এটি আপনার ক্ষুদা বৃদ্বি করে সেহেতু আপনার কিছুসময় পর পর ক্ষুদা লাগে আর আপনি আপনার কোনো ইচ্ছা না থাকা সত্তেও বারবার খাবার গ্রহণ করে থাকেন। সিনকারা আপনার খাবারের চাহিদাকে বাড়িয়ে তুলে।

মোটা হওয়ার জন্য হোমিওপ্যাথিক ঔষধের নাম

বলাহয় ধিরে কাজ করে কিন্তু রুগকে একেবারে শিকর থেকে নির্মুর করে রেখে দেয় এই হলো হোমিও প্যাথিক ঔষধ। যাই হোক যেমনটি বলেছিলাম মোটা হওয়ার ঔষধ মানেই হলো পাশ্ব প্রতিক্রিয়া। আর হোমিও প্যাথিকও আপনাকে এর প্রতিক্রিয়া থেকে রক্ষা করতে পারবে না।

পড়ুন: কৃমির ঔষধের নাম, জানুন কোন কৃমি কি লক্ষণ

যাই হোক তবুও একটু ভালো লাগার বিষয় হলো এটি হোমিও প্যাথিক ঔষধ। আমি নিজেও যে কোনো সমস্যাতে হোমিও প্যাথিক ঔষধই গ্রহন করে থাকি। মোটা হওয়ার জন্য হোমিওপ্যাথিক যে ঔষধটি সাজেস্ট করে থাকে সেটির নাম হলো পিউটন সিরাপ। আপনি ৩০০ থেকে ৪০০ টাকার মধ্যে এ ঔষধটি কিনতে পেয়ে যাবেন।

তবে বলেরাখা ভালো চিকিৎসকের কোনো পরামর্শ ছারা ঔষধটি ব্যবহার করবেন না। এতে খুব জটিল সমস্যার সম্মক্ষিন হয়ে পরতে পারেন।

মোটা হওয়ার জন্য ট্যাবলেট রুচিবেট

আবার যুদি আপনি ট্যাবলেটের প্রতি একটু বেশীই আগ্রহি হয়ে থাকেন তবে আপনি রুচিবেট নামক মুখের স্বাদ বাড়ানোর ঔষধটি গ্রহণ করতে পারেন। আপনি একটি ডোজ আকারে কিনে নিতে পারবেন। এটির একটি ডোজে থাকে ৩০টি বড়ি। এটি আয়ুর্বেদ কম্পানির একটি ঔষধ। আর আয়ুর্বেদ ঔষুধে তেমন কোনো পাশ্ব প্রতিক্রিয়া পরিলক্ষিত নয়।

মোটা হওয়ার জন্য ইন্ডিয়ান পণ্য বডি বিল্ড

মোটা হওয়ার জন্য এখন যে ঔষধটি তরুন সমাজের মধ্যে সবচেয়ে বেশী সারা তৈরি করেছে সেটি হলো ভারতবর্ষের উৎপাদানকৃত বডি বিল্ড নামক ঔষধটি। এটির প্রচারণায় কাজ করছে আদালত সিরিয়ালের খ্যাতিমান অভিনেতা যিনি কেডির চরিত্রে এক্টিং করেছেন রনিত রয়।

পড়ুন: ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য তালিকা এবং নিয়ম

বডি বিল্ডার খুব সহজেই গরম দুধের সাথে মিসিয়ে মিক্সিং করে প্রতিদিন সকালে খেলে ভালো প্রতিক্রিয়া দেখাতে পাওয়া যায়। আর প্রায় ভারতের অনেক তরুন তরুনি এর দ্বার উপকৃত হয়েছে।

আর বেশ ভালো রিভিউও কুরিয়েছে এ বডিবিল্ড নামের এ ঔষধটি। তবে প্রতারকরাও থেকে নেই ভুয়া বডি বিল্ড তৈরি করে বিক্রি করে চলেছে এরা তাই নকল এরাতে অবশ্যই যখন অফিসিয়াললি টেলিভিশনে এর বিজ্ঞাপন দেখাবে তখনই এটি ক্রয় করবেন।

বাংলাদেশ থেকেও এটি অডার করা যায়। তাদের স্ক্রিনে দেখানো নাম্বার যেটা তারা বাংলাদেশেল জন্য নির্ধারিত করবে সেটিটে কল করে আপনারা আপনাদের পণ্যটি হাতে নিয়ে নিতে পারবেন।

google

Categories

Featured